Notice :
Welcome To Our Website...Welcome to Dhaka Metro Rail
র‍্যাপিড পাস ও এমআরটি পাস রিচার্জ পদ্ধতি

র‍্যাপিড পাস ও এমআরটি পাস রিচার্জ পদ্ধতি

মেট্রোরেল চালু হওয়ার পর প্যাসেঞ্জারদের পছন্দের শীর্ষে রয়েছে এই র‍্যাপিড বা এমআরটি কার্ড। সিঙ্গেল জার্নি টিকেটের জন্য স্টেশনের দীর্ঘ লাইনে দাঁড়িয়ে থাকা কারোই ভালো লাগেনা। কিন্তু আপনার যদি একটা কার্ড থাকে পার্মানেন্ট ব্যবহার যোগ্য তাহলে কতই সুবিধা! চলুন জেনে নেয়া যাক, র‍্যাপিড পাস ও এমআরটি পাস রিচার্জ পদ্ধতি! Rapid Pass আরও পড়ুন...

কার্ড ব্লাকলিস্টেড হয় যেসব কারণে

কার্ড ব্লাকলিস্টেড হয় যেসব কারণে

মেট্রোরেল যাত্রাকে নির্বিঘ্ন করতে আপনার প্রয়োজন হবে একটি কার্ড । আজ আমরা জানবো এমআরটি/র‌্যাপিড পাস কার্ড ব্লাকলিস্টেড হয় যেসব কারণেঃ ১) বারবার কার্ড পাঞ্চ করা। এন্ট্রি বা এক্সিট গেইটে বারবার পাঞ্চ করার কারণে হতে পারে। অর্থাৎ, আপনার সামনের ব্যক্তি যাওয়ার পরে একটু সময় দিন, এরপর আপনার কার্ড পাঞ্চ করুন একবারই, আরও পড়ুন...

MRT pass ও Rapid Pass এর পার্থক্য

MRT pass ও Rapid Pass এর পার্থক্য

ঢাকা মেট্রোরেলের সবচেয়ে আলোচিত বিষয়বস্তু হচ্ছে কার্ড। অনেকেই দ্বিধাদ্বন্দে থাকেন যে কোনটা নিবেন আর কোনটায় সুবিধা বেশী! তাই আজ আমরা MetroRail Passengers Community- DHAKA এর সৌজন্যে জানবো MRT pass ও Rapid Pass এর পার্থক্যঃ MRT pass Rapid Pass ১) MRT Pass নিতে লাগে ৫০০ টাকা। এরমধ্যে ২০০ টাকা জামানত আর আরও পড়ুন...

MRT pass এর সকল চার্জ সমূহ

MRT pass এর সকল চার্জ সমূহ

ঢাকা মেট্রোরেলে ভ্রমণের জন্য আপনাকে নিতে হবে একটা MRT pass তা হতে পারে সিঙ্গেল জার্নি অথবা রেগুলার ইউজের জন্য কার্ড অথবা র‌্যাপিড পাস। তবে আজ আমরা জানবো আমাদের পার্মানেন্ট MRT Pass এর সকল চার্জ সমূহ। তাহলে চলুন আর কথা না বাড়িয়ে শুরু করা যাক!! ১) নতুন কার্ডঃ নতুন MRT Pass আরও পড়ুন...

র‍্যাপিড পাসের সকল চার্জ সমূহ

র‍্যাপিড পাস কার্ডের সকল চার্জ সমূহ

মেট্রোরেল ব্যবহারকারীদের জন্য র‍্যাপিড পাস বর্তমানে বেশ আলোচনার বিষয়। আজ আমরা জানবো এই র‍্যাপিড পাস কার্ডের সকল চার্জ সমূহ নিয়ে। ১) র‍্যাপিড পাস নতুন নিতে লাগবে ৪০০ টাকা। এর ২০০টাকা কার্ডে জামানত এবং ২০০ টাকা ব্যবহারযোগ্য ব্যালেন্স থাকবে। আরও পড়ুনঃ Rapid Pass ক্রয়ের সহজ নিয়ম ২) রেজিস্ট্রেশন করা আপনার কার্ডটি হারিয়ে আরও পড়ুন...

অনলাইনে Rapid Pass/ MRT pass এর ব্যালেন্স চেক করবেন যেভাবে

অনলাইনে Rapid Pass/ MRT pass এর ব্যালেন্স চেক করবেন যেভাবে

নোটিশঃ আপাতত অনলাইনে শুধুমাত্র র‍্যাপিড পাসের ব্যালেন্স দেখা যাচ্ছে।   বর্তমানে অনলাইনেও র‍্যাপিড পাসের ব্যালেন্স চেক করা যায় খুব সহজেই। ঢাকা পরিবহন সমন্বয় কর্তৃপক্ষ ২০১৮ সালে র‍্যাপিড পাস চালু করলেও এর ব্যাপক ব্যবহার শুরু হয়ে ঢাকা মেট্রোরেল চালু হওয়ার পর। সম্প্রতি এর ব্যবহার বৃদ্ধি পাওয়ায় কর্তৃপক্ষ এটিকে আরও আধুনিকায়নে চেষ্টা আরও পড়ুন...

MRT pass

যেভাবে খুব সহজেই MRT pass ক্রয় করবেন

লাইনে দাঁড়ানো ব্যতীত সরাসরি মেট্রোরেলে ভ্রমনের জন্য প্রয়োজন হবে MRT pass কার্ড। আজ আমরা শিখবো যেভাবে খুব সহজেই MRT pass ক্রয় করা যাবে। যেভাবে খুব সহজেই MRT pass ক্রয় করবেনঃ প্রথমত আপনি ঢাকা মেট্রোরেলের যেকোনো স্টেশনে যাবেন।সিঁড়ি বা লিফট (বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন ব্যক্তিরা) ব্যবহার করে উপরে উঠবেন, সেখানে গিয়ে দেখবেন টিকেট আরও পড়ুন...

Rapid Pass

Rapid Pass ক্রয়ের সহজ নিয়ম

ঢাকা মেট্রোরেল চালু হওয়ার পর র‍্যাপিড পাসের ব্যবহার বেড়েছে বহুগুন। যদিও এটি বেশ কয়েক বছর আগেই এনেছে ঢাকা পরিবহন সমন্বয় কর্তৃপক্ষ। র‍্যাপিড পাস ক্রয়ের বিস্তারিত সহজ নিয়ম নিম্নে তুলে ধরা হলোঃ র‍্যাপিড পাস ক্রয়ের জন্য আপনাকে যেতে হবে ডাচ বাংলা ব্যাংকের নির্দিষ্ট কিছু ব্রাঞ্চ, সাব-ব্রাঞ্চ বা ফার্স্ট ট্র‍্যাকে। উক্ত নির্দিষ্ট আরও পড়ুন...

MRT pass vs Rapid Pass

MRT pass নিবেন নাকি Rapid Pass

RAPID PASS এবং MRT PASS কোনটি নিবেন তা নিয়ে অনেকের মধ্যেই রয়েছে সংশয়। আজকে এই দুই কার্ডের বিস্তারিত পার্থক্য তুলে ধরবো আপনাদের জন্যঃ প্রথমত MRT Pass কী? MRT Pass এর মানে হলো Near-Field Communication (NFC) অত্যাধুনিক প্রযুক্তি ভিত্তিক একটি সংযোগবিহীন স্মার্ট আইসি কার্ড। এই কার্ড দিয়ে ঝামেলাবিহীন ভাবে অতিসহজে মেট্রোরেলের আরও পড়ুন...

© 2024 All rights reserved DhakaMetroRail.Com